সুপারফ্লুইড হিলিয়াম

0
113

এই ছবিতে তরল হিলিয়াম দেখা যাচ্ছে যা একটি কাচপাত্রে রাখা এবং কাচপাত্র থেকে তরল হিলিয়াম চুঁইয়ে নিচে পড়ছে। হিলিয়ামের তাপমাত্রা কমাতে কমাতে যখন পরমশূন্য তাপমাত্রার মাত্র দুই ডিগ্রি উপরে নিয়ে আসা হয় তখন তা সুপারফ্লুইডে পরিণত হয়। এই অবস্থায় তরলের সান্দ্রতা (viscosity) থাকে না, ফলে সে যেকোনো পৃষ্ঠ দেশে বাধাহীনভাবে ঘুরে বেড়াতে পারে। ছবিতে দেখা যাচ্ছে, হিলিয়ামের লেভেল কাচপাত্রের নিচে থাকা সত্ত্বেও তা কাচের পৃষ্ঠের উপর দিয়ে বাধাহীনভাবে প্রবাহিত হয়ে পাত্রের বাইরের পৃষ্ঠে চলে আসে এবং কাচের পৃষ্ঠের সাথে লেগে থাকা হিলিয়ামের পর্দা অভিকর্ষের প্রভাবে তলায় একটি ফোঁটার আকার পরিণত হয়ে অভিকর্ষের প্রভাবে নিচে পতিত হয়। সুপারফ্লুইড বা অতিপ্রবাহীর এই ধর্ম কাজে লাগিয়ে চিরস্থায়ী ফোয়ারা তৈরি করা সম্ভব যেই ফোয়ারা একবার চালু করে দিলে নিজের অতিপ্রবাহীতার কারণে চিরস্থায়ী ভাবে চালু থাকবে।

একই ধরনের বৈশিষ্ট্য লক্ষ্য করা যায় সুপার কন্ডাক্টর বা অতিপরিবাহীর ক্ষেত্রে। একটি আংটি আকৃতির অতিপরিবাহীর কোনো অংশে বিদ্যুৎ প্রবাহ চালনা করা হলে তা চিরস্থায়ীভাবে সেই রিংয়ে চক্রাকারে চলতে থাকে। সাধারণ পরিবাহীর সামান্য হলেও রোধ থাকে তাই বিদ্যুৎপ্রবাহের ফলে এর পরিবাহীর পরমাণুর সাথে সংঘর্ষ ঘটে ও উত্তপ্ত হয়ে ওঠে এবং বিদ্যুৎপ্রবাহ কিছু না কিছু হ্রাস পায়। কিন্তু অতিপরিবাহীর কোনো বৈদ্যুতিক রোধ থাকে না তাই পরিবাহীর অভ্যন্তরে সংঘর্ষ ঘটে না এবং তাপ উৎপন্ন হয় না। ফলে বৈদ্যুতিক প্রবাহেরও কোনো ক্ষয় হয় না।

Advertisement

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.