Wednesday, June 29, 2022
বাড়িবিজ্ঞান সংবাদ"উৎক্ষেপণের অপেক্ষায় দেশে তৈরী প্রথম রকেট"

“উৎক্ষেপণের অপেক্ষায় দেশে তৈরী প্রথম রকেট”

- Advertisement -

❝প্রথমবারের মত বাংলাদেশে তৈরী স্যাটেলাইট নিয়ে মহাকাশের উদ্দেশ্যে যাত্রা করবে রকেট! নিজস্ব প্রযুক্তিতে মহাকাশে থাকবে স্যাটেলাইট। টেলিযোগাযোগ, আবহাওয়া ও জলবায়ু পরবির্তনসহ নানা তথ্য সংগ্রহ করবে। পাশাপাশি নিরাপত্তা ও খনিজ সম্পদ অনুসন্ধানের মতো বিভিন্ন বড় প্রজেক্টের কাজ করবে ধুমকেতু!! ❞

গবেষণার লক্ষ্যে প্রথম প্রোটোটাইপ রকেট তৈরীকারী দল ‘ধুমকেতু’-র স্বপ্ন। এটি শুধু তাদের নয় পুরো বাংলাদেশের মানুষের স্বপ্ন।

গবেষণাগারে রাখা ‘ধুমকেতু-১’ রকেট

রকেটটির নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ধুমকেতু জানায় এই প্রজেক্টের নেতৃত্বে রয়েছেন ময়মনসিংহ ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ-এর প্রাক্তন ছাত্র নাহিয়ান। যার সাথে একযোগে কাজ করেছেন আরোও অনেকেই।

নাহিয়ান জানায়, “২০১৯ সাল থেকে ধুমকেতু-০১ নাম দিয়ে চলা এই রকেট প্রজেক্টের শুরু। টানা তিন বছর ধরে চলতে থাকা গবেষণা আলোর মুখ দেখে ২০২২-এ। এখন শুধু উড়ার অপেক্ষায়। সরকার অনুমতি দিলেই উৎক্ষেপন করা হবে।”

অবশ্য নাহিয়ানের সাফল্যে এর আগেও গর্বিত হয়েছে বাংলাদেশ । সে বিজয়ী হন ২০১৯ এর নভেম্বরে অনুষ্ঠিত টেকফেস্ট নির্বাচনী পর্বে । এরপর ভারতের বিখ্যাত IIT -তে অনুষ্ঠিত টেকফেস্টে সে বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করে। শীর্ষ-৫’এ অবস্থান করে সেমিফাইনালিস্ট হয় সেখানে।

নাহিয়ান জানায়, “ধুমকেতু প্রজেক্টটি শুরু হয় ২০১২ সালে। কিন্তু অর্থায়নের অভাবে থেমে যায় স্বপ্ন। তবে দমে যায়নি। ময়মনসিংহ ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ থেকে ২০১৭ সালে ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ের উপর স্নাতক ডিগ্রি নেন। পরে নাছোড়বান্দা নাহিয়ান আবার উদ্ভাবনের নেশায় বুদ হন। তাই সুযোগ থাকলেও দেশের বাহিরে যায়নি সে।”

টিম ধুমকেতু

টিম ধুমকেতু

“প্রাথমিকভাবে তরল জ্বালানির ইঞ্জিন ডিজাইন করা হয়। কিন্তু পরবর্তীতে অর্থাভাবে ও করোনা মহামারী সংকটে তরল অক্সিজেনের দাম বৃদ্ধিতে প্রজেক্ট চালানো কষ্টকর হয়ে পরে। ফলে বিকল্প হিসেবে সলিড ফুয়েলের ৪০০ নিউটন ও ১৫০ নিউটন থ্রাস্টের দুইটি ইঞ্জিনের প্রোটোটাইপ তৈরি করে এবং রকেটের আকৃতি কমানো হয়। বর্তমানে ৬ ফুটের দুইটি ও ১০ ফুট উচ্চতার আরও দুইটি প্রোটোটাইপ রকেট লঞ্চ করার সক্ষমতা তৈরি হয়েছে।”

উৎক্ষেপনের জন্য প্রস্তুত “DHUMKETU” রকেট

“ধুমকেতু” ময়মনসিংহ ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ- এর শিক্ষার্থীদের দ্বারা তৈরী রকেট। আবহাওয়া নিয়ে গবেষণার জন্য এই রকেট তৈরী করা হয়েছে। এটি সম্পূর্ণভাবে শিক্ষার্থীদের ফান্ডিং এ তৈরী। রকেটটি উৎক্ষেপণের জন্য সরকারি অনুমতি প্রার্থনা করছে ধুমকেতু টীম

নাহিয়ান আল রহমান এর মতে : “রকেট উৎক্ষেপণে সফলতার হার খুবই কম। নাসা ১৫ বার রকেট উৎক্ষেপণের পর সফলতা পেয়েছে। সেদিক থেকে আমরা আশাবাদী, আমাদের চারটি রকেট উৎক্ষেপণে সফলতা আসবে। বাংলাদেশ ইতোমধ্যে মহাকাশে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করা হয়েছে। এই রকেট উৎক্ষেপণ সফল হলে নিজের দেশে রকেট বানানো সম্ভব হবে।”

শিক্ষার্থীদের মতে,” প্রোটোটাইপ রকেট দুটি ভবিষ্যতে বড় আকারের রকেট তৈরির অনুপ্রেরণা দিবে”।🙂

  • হৃদয় বিশ্বাস
বিজ্ঞান পত্রিকার ইউটিউব চ্যানেল চালু হয়েছে।
এই লিংকে ক্লিক করে ইউটিউব চ্যানেল হতে ভিডিও দেখুন।
- Advertisement -

সম্পর্কিত খবর

- Advertisement -
- Advertisement -
- Advertisement -

Stay Connected

যুক্ত থাকুন

300,413ভক্তমত
1,030গ্রাহকদেরসাবস্ক্রাইব

Must Read

সম্পর্কিত পোস্ট

- Advertisement -
- Advertisement -

সবসময়ের জনপ্রিয়

সবচেয়ে আলোচিত

- Advertisement -
- Advertisement -
- Advertisement -
- Advertisement -
- Advertisement -
- Advertisement -
- Advertisement -