Sunday, September 19, 2021
বাড়িটুকিটাকি২০২০ সালে যেসব রেকর্ড ভেঙেছে বিজ্ঞান

২০২০ সালে যেসব রেকর্ড ভেঙেছে বিজ্ঞান

২০২০ সালের বিজ্ঞানের বিশ্বরেকর্ড

- Advertisement -

গত বছর নতুন রেকর্ড তৈরি করা ঘটনাগুলো শুনেছেন কি? বিজ্ঞান কিন্তু কখনোই থেমে থাকে না। কোভিড-১৯ এর ভয়াবহ প্রভাবে আমরা হয়ত ঘরবন্দী। কিন্তু বিজ্ঞানীরা এর মধ্যেই করে ফেলেছেন নতুন রেকর্ডের তালিকা। যদিও কয়েক মাস দেরি হয়ে গেলো তবু চলুন সেগুলো জেনে নেয়া যাক-

১.আকাশে দীর্ঘতম যাত্রা

শরীরের রঙ কিছুটা জং ধরা রঙের মত হলেও এই লম্বা ঠোঁটের পাখিটিই এই মৌসুমে আকাশে সবচেয়ে দীর্ঘ যাত্রা পাড়ি দিয়েছে বিশ্রামহীনভাবে।

ছবি: Shutterstock

২০২০ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর একটি পুরুষ ডোরালেজ জৌরালি (Limosa lapponica) পাখি  যার পরিচিতি “4BBRW” এই রেকর্ড করে। দক্ষিণ পূর্ব আলাস্কা থেকে নিউজিল্যান্ড পর্যন্ত ১১ দিনের যাত্রায় এর ভ্রমণ দৈর্ঘ্য ছিল ৭৫৮১ মাইল(১২,২০০ কিলোমিটার)। এর আগের রেকর্ডটি ছিল একটি স্ত্রী ডোরালেজ জৌরালির যেটি ২০০৯ সালে ৯ দিনের দীর্ঘ যাত্রায় পাড়ি দিয়েছিল প্রায় ৭১৪৫ মাইল (১১৫০০ কিলোমিটার)। জৌরালির প্রজাতির ভ্রমণ সত্যিই অভূতপূর্ব।  তবে 4BBRW এর এই রেকর্ড যাত্রা অবিস্মরণীয়।

২.দীর্ঘতম প্রাণী

অস্ট্রেলিয়ার সমুদ্রজীবন নিয়ে গবেষণা করার সময় বিজ্ঞানীরা একটি প্রাণী খুঁজে পান যার দৈর্ঘ্য ১৫০ ফিট (৪৫ মিটার)। ধারণা করা হচ্ছে এটিই বিশ্বের দীর্ঘতম প্রাণী।

ছবি: Schmidt Ocean Institute

এই প্রাণির দেহ বিভিন্ন সুতার মত অংশে বিভক্ত যাকে “zooids” বলে। প্রত্যেকটি zooid স্বতন্ত্র। তবে তারা একটি আরেকটির সাথে সংযুক্ত এবং একসাথে দেহের সামগ্রিক ক্রিয়া সম্পন্ন করে।

৩. দীর্ঘতম আলোকচিত্র

একটি বিয়ারের বোতল, আলোকচিত্র কাগজ এবং পিনহোল ক্যামেরার দ্বারা ২০১২ সাল থেকে সূর্যের আকাশে গতিপথ ধারণ করা হয়েছে। সম্ভবত এটি বর্তমানে বিশ্বের দীর্ঘতম প্রকাশিত আলোকচিত্র।

৮ বছর আগে University of Hertfordshire এর একজন শিক্ষার্থী একটি ক্যামেরা তৈরি করেন এবং তা বিশ্ববিদ্যালয়ের পর্যবেক্ষণ অংশের একটি টেলিস্কোপে স্থাপন করেন। তিনি তা ভুলেই গিয়েছিলেন।

ছবি: Regina Valkenborgh

Regina Valkenborgh বলেন, “আমি এমন কোনো উদ্দেশ্য নিয়ে ক্যামেরা স্থাপন করিনি। সৌভাগ্যবশত ছবিটি এখনো টিকে রয়েছে।” তিনি Barnet and Southgate কলেজের একজন আলোকচিত্র টেকনিশিয়ান।আলোকচিত্রটিতে ২৯৫৩ আর্ক আলোর দেখা পাওয়া যায় যা সূর্যোদয় এবং সূর্যাস্তের কারণে হয়েছে।

৪.সবচেয়ে দীর্ঘজীবি কচ্ছপ

Stupendemys geographicus প্রজাতির একটি কচ্ছপ ৮ মিলিয়ন বছর ধরে জীবিত আছে তার ৮ ফুটের খোলসটি নিয়ে৷ এটি একটি বিলুপ্ত প্রায় প্রজাতি যা  উত্তর আমেরিকায় ছিল ১২ থেকে ৫ মিলিয়ন বছর পূর্বের সময়কালে।

ছবি: Jaimi kirinos

এর ওজন ২৫০০ পাউন্ড (১১৪৫ কিলোমিটার) যা এর পরবর্তী দীর্ঘজীবী কচ্ছপ Amazon river turtle(Peltocephalus dumerilianus) এর ১০০ গুণ এবং দৈর্ঘ্যে দ্বিতীয় কচ্ছপ Marine leatherback (Dermochelys coriacea) এর দ্বিগুণ। ১২ফেব্রুয়ারী, ২০২০ এই তথ্যটি প্রকাশিত হয়।

৫. প্রবীণতম জমজ

অস্ট্রিয়ার Krems Watchburg  এ একটি প্রত্নতাত্ত্বিক স্থানে ৩১,০০০ বছর বয়সী একটি কবর পাওয়া যায় যেখানে সবচেয়ে পুরোনো অভিন্ন জমজ শিশুর খোঁজ পাওয়া যায়।

ছবি: Orea Oaw

এটি ২০০৫ সালে আবিষ্কৃত হয়৷ তবে সাম্প্রতিক একটি ডিএনএ গবেষণার মাধ্যমে পাওয়া যায় যে তারা অভিন্ন জমজ। এদের মধ্যে একটি শিশু জন্মের সাথে সাথেই মারা যায়। অন্যজন প্রায় ৫০ দিন পর মারা যায়। নভেম্বরের ৬ তারিখ এই তথ্যটি প্রকাশিত হয়।

৬. প্রাচীনতম শুক্রাণু

উত্তর মিয়ানমারের একটি খনিতে একটি অ্যাম্বারে বিজ্ঞানীরা বিশ্বের প্রাচীনতম শুক্রাণু আবিষ্কার করেছিলেন। অ্যাম্বারটিতে ৩৯টি ছোট অস্ট্রাকোড ছিল যা এক ধরণের ক্রাস্টাসিয়ান প্রাণী। এর মধ্যে ৩১ টি Myanmarcypris hui প্রজাতির অন্তর্গত।

একটি স্ত্রী M. hui এর ভেতরে চারটি ডিম্বাণু রয়েছে এবং স্প্যাগেটি আকৃতির একটি ঘন অংশ যাতে বিশ্বের প্রাচীনতম শুক্রাণু আবিষ্কৃত  হয়েছে যার বয়স প্রায় ১০০ মিলিয়ন বছর।

ছবি: Dinghua Yung

এর পূর্বের শুক্রাণুটি ছিল ৫০ মিলিয়ন বয়সের যা এন্টার্কটিকার একটি কৃমিতে পাওয়া গিয়েছিল। এটি ১৬ সেপ্টেম্বর প্রকাশিত হয়।

৭.প্রাচীনতম পদার্থ

৭ বিলিয়ন বছর আগে “Stardust”-জাতীয় পদার্থ পৃথিবীতে এসে পড়ে একটি উল্কাপাতের মাধ্যমে। আর এটাই বিশ্বের প্রাচীনতম পদার্থ। সূর্যের থেকেও প্রাচীন ধূলিকণা যা মহাবিশ্বে ছড়িয়ে ছিল। এই stardust গুলোই ১৯৬৯ সালে  Murchison meteorite বা উল্কাপাতের মাধ্যমে পৃথিবীতে আসে যা অস্ট্রেলিয়ায় পতিত হয়েছিল।

ছবি: NASA

বিজ্ঞানীরা murchison এর উপর বিষদ গবেষণা চালান। এর গুঁড়োগুলো নিয়ে গবেষণা করেন এবং এর সাথে এসিড যুক্ত করেন যা সিলিকেট এবং খনিজ পদার্থ গলিয়ে দেয় এবং ধূলিকণাগুলোকে আলাদা করে দেয়। ১৩ জানুয়ারি, ২০২০ এই প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়।

৮.শব্দের দ্রুততম গতি

শব্দ কত দ্রুত চলাচল করতে পারে তা বিজ্ঞানীরা বের করেছেন এবং এই পরিমাপ হল প্রতি সেকেন্ডে ২২ মাইল বা ৩৬ কিলোমিটার। শব্দ কোন মাধ্যমে চলাচল করছে তার উপর ভিত্তি করে শব্দের গতি নির্ধারিত হয়।যেমন শীতল মাধ্যমের তুলনায় উষ্ণ মাধ্যমে শব্দের গতি বেশি।

ছবি: Shutterstock

কম ভরবিশিষ্ট পদার্থে শব্দের গতি বেশি। তাই গবেষকগণ কম ভর বিশিষ্ট হাইড্রোজেনের একটি পরমাণুতে এই গবেষণা চালান। তবে হাইড্রোজেনের ভর কম কিন্তু তা কঠিন পদার্থ নয় যতক্ষণ তা পৃথিবীর বায়ুমন্ডল অপেক্ষা বেশি চাপ প্রদান না করা হয়।

শব্দ সর্বোচ্চ প্রতি ঘণ্টায় ৭৯,২০০ মাইল  বা ১,২৭,৪৬০ কিলোমিটার যেতে পারে৷ অক্টোবরের ৯ তারিখ এই গবেষণা প্রকাশিত হয়।

৯. দীর্ঘতম বজ্রপাত

২০১৮ সালে ব্রাজিলে পৃথিবীর ইতিহাসের দীর্ঘতম বজ্রপাত দেখা যায় যার দৈর্ঘ্য ছিল ৪৪০ মাইল (৭০০ কিলোমিটার)। আটলান্টিক উপকূল থেকে আআর্জেন্টিনার প্রান্ত পর্যন্ত এটি বিস্তৃত ছিল। বিজ্ঞানীরা নতুন স্যাটেলাইট প্রযুক্তির মাধ্যমে এটি নিশ্চিত করেন যে এই নতুন বজ্রপাতের রেকর্ডটি আগেরটির তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ যেটি ২০০৭ সালে Oklahoma তে দেখা গিয়েছিল। তবে একটি মজার তথ্য হল বজ্রপাত দীর্ঘতর হয় না, বরং এটি পরিমাপ করার যন্ত্রই দীর্ঘতর হচ্ছে।

ছবি: Shutterstock

তবে আরেকটি প্রতিবেদনে এমনও দেখা গিয়েছে যে উত্তর আর্জেন্টিনায় ২০১৯ সালের মার্চ মাসে সবচেয়ে বড় বজ্রপাত দেখা যায় যা ১৭ সেকেন্ড স্থায়ী হয়েছিল।

১০. প্রাচীনতম অন্ত্র

বিজ্ঞানীরা নেভাডাতে বিশ্বের প্রাচীনতম পরিপাক তন্ত্রের ফসিল পেয়েছেন যা ৫৫০ থেকে ৫৩৯ মিলিয়ন বছর পূর্বের। cloudinomorphs যা ছিল পূর্ব রেকর্ডধারী অন্ত্রের শরীর। এর থেকেও প্রায় ৩০মিলিয়ন বছর বেশি বয়স এই নতুন পাওয়া অন্ত্রের।

ধারণা করা হচ্ছে এই অন্ত্র কোনো নিডারিয়া পর্বের কোরাল কিংবা অ্যানিলিডা পর্বের কৃমির সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ। এর নরম টিস্যুটি অনেকটা টিউবের মত আকৃতির। বিজ্ঞানীদের মতে এটি কৃমির সাথেই সবচেয়ে বেশি সাদৃশ্যপূর্ণ। ১০ জানুয়ারি এই প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়।

-নাজনীন নাহার অনন্যা

বিজ্ঞান পত্রিকার ইউটিউব চ্যানেল চালু হয়েছে।
এই লিংকে ক্লিক করে ইউটিউব চ্যানেল হতে ভিডিও দেখুন।
- Advertisement -

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সম্পর্কিত খবর

- Advertisement -
- Advertisement -
- Advertisement -

Stay Connected

যুক্ত থাকুন

302,509ভক্তমত
779গ্রাহকদেরসাবস্ক্রাইব

Must Read

সম্পর্কিত পোস্ট

- Advertisement -
- Advertisement -

সবসময়ের জনপ্রিয়

সবচেয়ে আলোচিত

- Advertisement -
- Advertisement -
- Advertisement -
- Advertisement -
- Advertisement -
- Advertisement -
- Advertisement -