অ্যাম্বার (Amber) বা তৈলস্ফটিক হচ্ছে গাছের ক্ষতস্থান হতে নিঃসৃত এক প্রকার রেজিন যা ক্ষতস্থানের সুরক্ষার জন্য গাছ হতে নিঃসৃত হয় এবং বাতাসের সংস্পর্শে ক্রমশঃ পলিমারে পরিণত হতে হতে কঠিন হতে থাকে। তরল অবস্থায় থাকার সময় অনেক ক্ষেত্রে নানাবিধ পোকামাকড় অ্যাম্বারের সংস্পর্শে এসে এর মধ্যে ডুবে মৃত্যুবরণ করে এবং অ্যাম্বার কঠিন হয়ে গেলেও সেই পোকাটি এর ভিতরে নিশ্চল অবস্থায় থেকে যায় এবং ফসিলে পরিণত হয়। এই প্রক্রিয়ায় একসময় গাছের মৃত্যু হয় কিন্তু সেই রেজিনের ক্ষয় হয় না বরং অবিকৃত থেকে ক্রমশঃ আরো কঠিন থেকে কঠিনতর হতে থাকে। লক্ষ/কোটি বছরের পরিক্রমায় একসময় মৃত বনাঞ্চল কয়লার স্তরে পরিণত হয়, তার উপরে শিলাস্তর জমে যায়, এমনকি কখনো তা সমুদ্রাঞ্চলে পরিণত হতে পারে। এই সময় সমুদ্র স্রোতের প্রভাবে শিলাস্তর ক্ষয় হয়ে অ্যাম্বারের অংশটুকু কয়লা হতে পৃথক হয়ে পানিতে ভেসে বেড়াতে পারে এবং সমুদ্রপৃষ্ঠে উঠে আসতে পারে।

এই অবস্থায় অ্যাম্বারে অবদ্ধ পোকামাকড় বা অন্যান্য বস্তু থেকে লক্ষ কিংবা কোটি বছরের পুরোনো পৃথিবী সম্বন্ধে অনেক কিছু জানা যায়। বিশেষ করে পোকামাকড়ের ফসিল থেকে তাদের উদ্ভব এবং বিবর্তনীয় পরিবর্তন সম্পর্কে অনেক তথ্যই জানা যায়। তাছাড়া রত্ন হিসেবে অলঙ্কারে অ্যাম্বার ব্যবহৃত হয় এদের উজ্জল স্বচ্ছ পৃষ্ঠের জন্য।