মঙ্গলে সূর্যগ্রহণের ছবি তুলেছে কিউরিওসিটি রোভার

0
73

সূর্যগ্রহণ একটি অসাধারণ জ্যোতিঃমন্ডলীয় ঘটনা। আর এটি যে কেবল পৃথিবী থেকেই দেখা যায় তা নয়। যেসব গ্রহের উপগ্রহ রয়েছে সেসব গ্রহের পৃষ্ঠ হতেও সূর্যগ্রহণ পর্যবেক্ষণ করা সম্ভব।

লাল গ্রহ মঙ্গলের পৃষ্ঠ চষে বেড়ানো কিউরিওসিটি মঙ্গলযান সম্প্রতি একটি নয় বরং দুটি সূর্যগ্রহণ প্রত্যক্ষ করেছে এবং তার ছবি তুলে পাঠিয়েছে। গতমাসে মঙ্গলের দুটি উপগ্রহ ডিমোস এবং ফোবোস সূর্যকে অতিক্রম করে যায়। মার্চের ১৭ তারিখে কিউরিওসিটির মাস্তুল ক্যামেরায় অপেক্ষাকৃত ছোট উপগ্রহ ডিমোসকে সূর্যের সামনে দিয়ে অতিক্রম করে যেতে দেখা যায়। ডিমোসকে একটি চাঁদের চেয়ে বরং গ্রহাণুর সাথেই বেশী তুলনা করা যায়। এটি এতই ছোট যে এর ব্যস মাত্র ২.৩ কিলোমিটার। সেই কারণে সূর্যের সামনে দিয়ে অতিক্রম করার এই ঘটনাটি গ্রহণের চেয়ে ট্রানজিটের সাথেই বেশী সাদৃশ্যপূর্ণ।

ডিমোসের সূর্যগ্রহণ (NASA/JPL-CALTECH/IFLSCIENCE)

তবে যত ক্ষুদ্রই হোক, ডিমোসের সূর্যগ্রহণ পর্যবেক্ষণ হতে এর গতিপথ এবং অবস্থানের বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে। প্রথমবারের মতো মঙ্গলের পৃষ্ঠ হতে পর্যবেক্ষণকৃত গ্রহণ হতে জানা গেছে ধারনার চেয়ে ক্ষুদ্র উপগ্রহটি মঙ্গলের পৃষ্ঠ হতে ৪০ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করে।

ফোবোসের সূর্যগ্রহণ (NASA/JPL-CALTECH/IFLSCIENCE)

মার্চের ২৬ তারিখে কিউরিওসিটি ডিমোসের ‘বড় ভাই’ ফোবোসের মাধ্যমেও সূর্যগ্রহণের ছবি তুলেছে। নানা দিক থেকেই ফোবোস ডিমোসের চেয়ে অনেক নাটকীয়। এটি অপেক্ষাকৃত বড় এবং ব্যস প্রায় ১১.২ কিলোমিটার এবং মঙ্গলের মাত্র ৬০০০ কিলোমিটার দূর হতে এটি তিনে তিনবার প্রদক্ষিন করে। সৌরজগতের কোনো উপগ্রহ এবং গ্রহের মধ্যে এটিই সবচেয়ে কম দূরত্ব। প্রকৃতপক্ষে ফোবোস প্রতি ১০০ বছরে মঙ্গলের দিকে ১.৮ মিটার করে এগিয়ে আসছে। এই হারে এটি মঙ্গলের বুকে আছড়ে পড়তে ৫ কোটি বছর সময় লাগবে। [IFLSCIENCE অবলম্বনে]

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.