তাকিয়ে থাকলে মিলিয়ে যায় যে দৃষ্টি বিভ্রামক ছবি

0
55

যে ছবিটি দেখানো হয়েছে তার দিকে কিছুক্ষণ এক দৃষ্টিতে তাকিয়ে থাকলে ধীরে ধীরে তার বর্ণ মিলিয়ে যায় এবং একপর্যায় আর কিছু দেখা যায় না। শুরুতে হালকা রংয়ের শেডগুলো মিলিয়ে যেতে থাকে, পরে ধীরে ধীরে অন্য বর্ণগুলোও মিলিয়ে গিয়ে শুধু পটভুমি দৃশ্যমান হয়। পলক না ফেলা পর্যন্ত এই পরিস্থিতি বিদ্যমান থাকে।

এই ঘটনাটি একধরণের দৃষ্টি বিভ্রম যা ট্রক্সলারের প্রভাব নামে পরিচিত। সুইস চিকিৎসক, রাজনীতিক এবং দার্শনিক ইগনাজ ট্রক্সলার এই বিষয়টি প্রথম ব্যাখ্যা করেন। ছবির রংগুলো অবশ্যই বাস্তবে মিলিয়ে যায় না। বরং আমাদের চোখে একধরনের অনুভূতি দেয় যে রংগুলো মিলিয়ে গেছে। এখান থেকে ধারনা পাওয়া যায় কেমন করে আমাদের মস্তিষ্ক নিরবচ্ছিন্নভাবে গৃহীত হাজার হাজার তথ্য প্রক্রিয়া করে। এই ধরনের ঘটনা নির্বাচিত প্রক্রিয়াকরণ নামে পরিচিত। আমাদের না জানিয়েই মস্তিষ্ক প্রচুর অপ্রয়োজনীয় তথ্য ফেলে দেয় যেন গুরুত্বপূর্ণ তথ্যের দিকে বেশী মনোযোগ দিতে পারে।

যদি কোনো কিছু থেকে আগত বর্ণে পরিবর্তন লক্ষ্য না করা যায় তাহলে মস্তিষ্ক সেসব তথ্য গ্রহণের প্রবণতা হ্রাস করতে থাকে যে কারণে আমরা বর্ণ মিলিয়ে যেতে দেখি এবং মানসিকভাবে ছবিটি পটভূমির বর্ণ দ্বারা পূরণ হতে থাকে। স্বাভাবিক দৈনন্দিন কর্মকান্ডে আমরা এসব লক্ষ্য করি না কেননা আমরা অনবরত নড়াচড়া করি কিংবা আমাদের চোখের সামনে দৃশ্যপট পরিবর্তন হয়।

আমাদের মস্তিষ্ক যত ধরনের সংকেত নানাবিধ ইন্দ্রিয়ের মাধ্যমে গ্রহণ করে তার সবটুকু একই হারে প্রক্রিয়া করে না। গুরুত্ব বিবেচনা করে মস্তিষ্কে প্রক্রিয়াকরণের ঘটনা ঘটে। দৃষ্টি ব্যাতীত অন্যান্য ইন্দ্রিয়ের ক্ষেত্রে এটি আরো স্পষ্টভাবে বোঝা যায়। এই কারণেই গায়ে সুগন্ধি মাখার কিছু পরে আর আমরা নিজেরা তার ঘ্রাণ পাই না। কেননা মস্তিষ্ক তখন এই তথ্যটি ছেড়ে অন্য দিকে বেশী মনোযোগ দেয়।

এই একই ঘটনা “ব্লাডি মেরি মিরর” বিভ্রমের জন্য দায়ী। ২০১০ সালের একটি গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদের মৃদু আলোতে ১০ মিনিটের জন্য আয়নার দিকে তাকিয়ে থাকতে বলা হয্ এদের মধ্যে শতকরা ৬৬ জন দাবী করেছেন তাঁরা আয়নাতে নিজের চেহারা ক্রমশঃ বিকৃত হয়ে যেতে দেখেছেন। ২৮ শতাংশ বলেছেন তাঁরা আয়নাতে নিজেদের পেছনে অন্য মানুষের উপস্থিতি টের পেয়েচেন আর ৪৮ শতাংশ নানাবিধ পৌরাণিক চরিত্র আর ভূত-প্রেত দেখেছেন। এই সবই মনের খেয়াল।

মস্তিষ্কের এই বৈশিষ্ট্য নানাবিধ চিত্রের মধ্যেই উপলব্ধি করা যায়। এর মধ্যে রয়েছে একটি বিন্দুর চারদিকের বৃত্তের অদৃশ্য হয়ে যাওয়া এবং এই ধরনের আরো কিছু প্রচলিত বিভ্রম।

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.