তুরষ্কের হ্রদের তলদেশে ৩ হাজার বছরের পুরনো দুর্গের সন্ধান লাভ

0
148

সাধারণত ডুবো শহরের ধারনাগুলো পৌরণিক কাহিনীতেই দেখা যায়। তবে গতবছরের শেষের দিকে তুরষ্কের ভ্যান হ্রদের তলদেশে প্রত্নতত্ত্ববিদগণ সত্যিকারের এক দুর্গ খুঁজে পেয়েছেন। মধ্যপ্রাচ্যের দ্বিতীয় সর্ববৃহৎ হ্রদের গভীরে প্রায় একদশক যাবৎ অনুসন্ধান শেষে পৃষ্ঠের কয়কশ’ মিটার নিচে এই হারানো সাম্রাজ্য খুঁজে পাওয়া গেছে।

ভ্যান উজুঙ্কু ইল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্নতত্ত্ববিদদের দল ২০১৭ সালের নভেম্বরে এই অনন্যসাধারণ আবিষ্কারের ঘোষনা দেন। হ্রদের গভীরে ৩০০০ বছরের পুরোনো দুর্গ বেশ যথাযথ অবস্থায় বিদ্যমান রয়েছে। এটি খুঁজে পেতে গবেষকদের দলটি ডুবুরিদের একটি দলের সঙ্গে একযোগে কাজ করেছেন।

ডুবুরীদলের প্রধান তাহসিন সিলান প্রথমে ভ্যান হ্রদের দৈত্যের সন্ধানে এসেছিলেন। কিন্তু তাঁর বদলে তিনি আস্ত এক হারানো শহর খুঁজে পান! তিনি গণমাধ্যমের সাথে সাক্ষাৎকারে বলেন, “এই হ্রদের নীচে কিছু একটা আছে বলে গুজব রয়েছে যদিও প্রত্নতত্ত্ববিদ এবং জাদুঘরের কর্মীবৃন্দ বলেছিলেন আমরা কিছুই খুঁজে পাব না।”

দুর্গটি প্রায় এক কিলোমিটার ব্যাপী বিস্তৃত যার দেয়াগুলো উচ্চতায় তিন থেকে চার মিটার। হ্রদের ক্ষারীয় পানির প্রভাবে এগুলো ভালো অবস্থায় সংরক্ষিত রয়েছে। গবেষকগণ ধারনা করছেন এই স্থাপনাটি খ্রীষ্টপূর্ব নবম হতে খ্রীষ্টপূর্ব ষষ্ঠ শতকের যখন উরারটু সভ্যতার শাসন চলছিল। এই সভ্যতাকে ভ্যান সাম্রাজ্যও বলা হয়।

তবে সহস্রাব্দকাল ধরে হ্রদের গভীরতায় অনেক পরিবর্তন ঘটেছে। ইতিপূর্বে এটি আরো গভীর ছিল। তবে বিপুল পরিমানে পলি জমা হয়ে এর গভীরতা হ্রাস পেয়েছে এবং প্রাচীন শহরটিকে বহুলাংশে ঢেকে দিয়েছে। [Science Alert অবলম্বনে]

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.