এন্টিবায়োটিক প্রতিরোধ পরীক্ষার জন্য E. Coli ব্যাক্টেরিয়া উৎক্ষেপণ করবে নাসা

0
135

আজ শনিবার নাসা একটি অতিপরিচিত মুত্র থলির প্রদাহ সৃষ্টিকারী এবং খাদ্যবাহিত রোগসৃষ্টিকারী E. coli ব্যাক্টেরিয়াকে মহাশূন্যে পাঠাতে যাচ্ছে। এর মাধ্যমে এন্টিবায়োটিকের বিরুদ্ধে এই ব্যক্টেরিয়ার প্রতিরোধ বিষয়ে গবেষণা করা হবে।

E. coli AntiMicrobial Satelite (EcAMSat) মিশনটি আজ গ্রিনিচমান সময়ের দুপুর ১২ টা ৩৭ মিনিটে সিগনাস কার্গো মহাশূন্যযানে করে আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনের (ISS) উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে। এই অভিযানে মহাকাশ সংস্থায় অবস্থিত নভোচারীদের গবেষণার জন্য আরো নানাবিধ সরঞ্জাম সরবরাহ করা হবে।

ব্যক্টেরিয়ার নমুনা ISS এর পৌঁছালে প্রায় শূন্য মাধ্যাকর্ষনে এরা এন্টিবায়োটিকের বিরুদ্ধে কী ধরনের প্রতিরোধ গড়ে তোলে তা পর্যবেক্ষণ করে দেখা হবে। গতশতাব্দীর মাঝামাঝি হতে মানুষ এন্টিবায়োটিক আবিষ্কারের পর হতে জীবাণুসমুহ নানাবিধ বিবর্তনের মধ্য দিয়ে যায় এবং বেশ কিছু জীবানু নতুন নতুন জিন উদ্ভবের মাধ্যমে প্রচলিত এন্টিবায়োটিকগুলোর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলে।

নাসার কর্মকর্তাগণ এক বিবৃতিতে বলেন, “EcAMSat ব্যক্টেরিয়ার এক্টিবায়োটিক প্রতিরোধের উপর এবং এদের জিনের উপর মহাশূন্য ভ্রমণের প্রভাব পর্যবেক্ষণ করবে। ব্যাক্টেরিয়ার এন্টিবায়োটিক প্রতিরোধ ক্ষমতা দীর্ঘমেয়াদে ভ্রমনশীল নভোচারীদের স্বাস্থ্যের উপর প্রভাব ফেলতে পারে এবং এর ফলে তাঁদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল হয়ে উঠতে পারে। বিজ্ঞানীরা মনে করেন এই পরীক্ষায় প্রাপ্ত ফলাফল নভোচারীদের স্বাস্থ্য রক্ষায় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণে সহায়তা করবে।”

পৃথিবীপৃষ্ঠে এই পরীক্ষার অগ্রগতিও উল্লেখযোগ্য পরিমান কাজে লাগবে। বিজ্ঞানীরা জানতে পারবেন ব্যাক্টেরিয়ার উপর প্রযুক্ত বল কী ধরনের প্রভাব তৈরি করে এবং এর মাধ্যমে নতুন এন্টিবায়োটিক উদ্ভবে অগ্রগতি তৈরি হতে পারে।

এই পরীক্ষার প্রধান লক্ষ্য, “E. coli ব্যাক্টেরিয়ার সর্বনিন্ম ডোজ নির্ণয়, যার মাধ্যমে এর বংশবৃদ্ধি থামিয়ে দেয়া যায়”- নাসার কর্মকর্তগণ বিবৃতিতে উল্লেখ করেন। [space.com অবলম্বনে]

-বিজ্ঞান পত্রিকা ডেস্ক

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.