মঙ্গলে পানির উপস্থিতির আরো আলামত

0
132

মঙ্গল গ্রহের পৃষ্ঠ জুড়ে ৩৫০ কোটি বছরের পুরোনো নদীর গতিপথের ধারা সনাক্ত হয়েছে যার মাধ্যমে বোঝা যায় এই গ্রহটি একসময় তরল পানির প্রবাহ ধারণ করতে পারত। মঙ্গলের এওলিস ডরসা নামের একটি অঞ্চলে সবচেয়ে ঘন এবং ব্যপক আকারে নদীর পলি জমে থাকতে দেখা গেছে।

কৃত্রিম উপগ্রহের মাধ্যমে এই প্রাচীন নদীগুলোর গতিপথের ছবি পাওয়া যায় একটি বিশেষ ভুতাত্ত্বিক ঘটনার ফলে। টপোগ্রাফিক ইনভার্সন বা ভুমির বিপরীতায়ন নামের এই ঘটনায় প্রাচীন অগভীর নদীগুলোতে পলি জমার মাধ্যমে এদেরকে গভীর খাঁজের মতো দেখা যায়।

কৃত্রিম উপগ্রহে স্থাপিত উচ্চ রেজ্যুলেশনের ক্যামেরার মাধ্যমে সংগৃহীত উচ্চ মানের ছবি ও ভূমিগত তথ্যের সমন্বয়ে জ্যাকসন স্কুল অব জিওসায়েন্সের গবেষক বি.টি. কার্ডেনাস এবং তাঁর সহকর্মীবৃন্দ সমুদ্রতট সংলগ্ন পলিজাতীয় স্তর সনাক্ত করেন। এর মাধ্যমে তাঁরা বিভিন্ন সময় নদীর গতিপথ পরিবর্তিত হয়ে যাওয়ার রেকর্ডও পর্যবেক্ষণ করতে পারেন।

এই দুই ধরনের পর্যবেক্ষণ একত্রিত করে দেখা যায় নদী বিধৌত পলির স্তর একদা খোদিত উপত্যাকাগুলোকে পূর্ণ করেছে। পৃথিবীর ক্ষেত্রে এই ধরনের উপত্যাকা সমুদ্রেরপৃষ্ঠের হ্রাস বৃদ্ধির সাথে সাথে একবার ক্ষয় প্রাপ্ত হয় আবার ভরাট হয়।

কার্ডেনাস এবং তাঁর সহ-গবেষকবৃন্দ একই ধরনের পর্যবেক্ষণ করেছেন মঙ্গলের পৃষ্ঠে। তাঁরা দেখেছেন পৃথিবীতে সমুদ্রপৃষ্ঠের যেমন হ্রাস বৃদ্ধির আলামত দেখা গেছে উপত্যাকাগুলোর গঠন পর্যবেক্ষণ করে তেমনই আলামত রয়েছে মঙ্গলে। এ থেকে বোঝা যায় মঙ্গলে একদা প্রবাহমান জলস্রোত এবং সমুদ্র ছিলো। [ScienceDaily অবলম্বনে]

-বিজ্ঞান পত্রিকা ডেস্ক

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.