মানব ভ্রুনে সফল জিন সম্পাদনা করা হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে

0
199

বার্তমান বিশ্বের অন্যতম নির্ভুল এবং সহজ জিন সম্পাদনা প্রযুক্তি হলো CRISPR। জিনগত তথা বংশগত রোগব্যাধি দুর করা এবং ক্যান্সারের চিকিৎসাও এর হাতের নাগালে। CRISPR এর বেশকিছু ধারনা বর্তমানে পরীক্ষামূলকভাবে প্রয়োগাধীন রয়েছে, যার মধ্যে আছে মানবভ্রুন সম্পাদনাও।

গুজব রয়েছে যে চীনের গবেষকগণ বেশ কিছুদিন ধরেই মানব ভ্রুনে জীন সম্পাদনা করছেন তবে এসব সম্পাদিত ভ্রুন গর্ভাবস্থায় টিকে থাকে না। গত বছর একটি খবর ছড়িয়ে পড়ে যে সুইডিশ গবেষকগণ বিশ্বের প্রথম ভ্রুন সম্পাদনাকারী যারা CRISPR প্রযুক্তি ব্যবহার করেন। এই সম্পাদিত ভ্রুন গুলো দুই সাপ্তাহ পর নষ্ট করে ফেলা হয়।

সম্প্রতি, যুক্তরাষ্ট্রের গবেষকগণও এই গবেষণার দিকে ঝুঁকেছেন। MIT Technology Review গবেষণাপত্রে প্রকাশিত তথ্যে জানা যায় ওরিগন হেলথ এন্ড সায়েন্স ইউনিভার্সিটির গবেষকগণ বেশ কিছু এককোষীয় মানবভ্রুণ সম্পাদনা করেছেন। এই কাজে তাঁরা ব্যবহার করেছেন CRISPR প্রযুক্তি।

গবেষকগণ গবেষণায় দেখিয়েছেন প্রযুক্তির প্রয়োগের মাধ্যমে জিনগত ত্রুটি সংশোধন করা যায় যার ফলে শেষ বয়সে নানা ধরনের স্বাস্থ্যগত জটিলতা এড়ানো সম্ভব। সুইডেন এবং চীনের গবেষণার সাথে যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান গবেষণা মিলিয়ে বলা যায় CRISPR প্রযুক্তি প্রয়োগে প্রথম জিন প্রকৌশলের মাধ্যমে মানব সন্তান জন্ম নেওয়ার দিন সমাগত।

-বিজ্ঞান পত্রিকা ডেস্ক

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.