ক্যাসিনি মহাকাশযান ধ্বংস করে ফেলা হবে আগামী মাসে

0

এক মাসের কম সময়ের মধ্যে আমরা আর শনি গ্রহ থেকে নতুন জ্ঞান আহরণ করতে পারব না।সেপ্টেম্বরের ১৫ তারিখে ক্যাসিনি তার শেষ বিদায় সম্ভাষণ জানিয়ে দেবে এবং শনি গ্রহের মধ্যে পতিত হবে। কিছু কারণে ক্যাসিনিকে ধ্বংস করে ফেলা অনিবার্য হয়ে উঠেছে। ক্যাসিনি শনি গ্রহের ব্যবস্থার প্রতি হুমকি হয়ে উঠেছে কারণ এটি দূষণের ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে।

যে মূহুর্তে শনির উপগ্রহ এনসেলাডাসে বরফের আস্তরণের নিচে পানি আবিষ্কৃত হয়েছে এবং অন্য উপগ্রহ টাইটানে জটিল রাসায়নিক বস্তুর উপস্থিতি দেখা গেছে সেই সময় হতেই ক্যাসিনি তার নিজের মৃত্যু ঘন্টা বাজিয়ে দিয়েছে। কেননা, ক্যাসিনিকে যথাযথভাবে জীবাণুমুক্ত করে প্রেরণ করা হয় নি। কাজেই এই সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া যায় না যে ১৯৯৭ সালে এটিকে যখন প্রেরণ করা হয় তখন এটি পৃথিবী থেকে ব্যক্টেরিয়া বহন করে নিয়ে গেছে। যদিও গভীর মহাশূন্যে তীব্র বিকিরণের মধ্যে ব্যাক্টেরিয়ার বেঁচে থাকার কথা নয় তবু শনির উপগ্রহে যদি জীবন থেকে থাকে তাহলে তাদের উপর ব্যাক্টেরিয়া হানা দেওয়ার ঝুঁকি আমরা নিতে পারি না।

এছাড়া ক্যাসিনি নভোযানটির জ্বালানীও ফুরিয়ে আসছে, কাজেই দেরিতে হোক বা শিঘ্রই, একটি সিদ্ধান্ত নিতেই হতো। এই নভোযানটিকে যারা পরিচালিত করছে সেই নিয়ন্ত্রন সংস্থাগুলো নাসা, ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সী এবং ইতালিয়ান স্পেস এজেন্সী  এটিকে সেপ্টেম্বরের মধ্যে ধ্বংস করে ফেলার জন্য যৌথ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

তবে একটি করুন সমাপ্তি জ্ঞান আহরণ বন্ধ করে দেবে না। এই শেষ পরিণতিতে যাকে গ্র্যান্ড ফিনালে বলা হচ্ছে, ক্যাসিনি শনি গ্রহের মধ্যে পতিত হবে। এবং তার আগে এটি এমন জায়গায় যাবে যেখানে এর আগে কোনো অনুসন্ধানী প্রোব যায় নি। এটি শনি এবং এর বলয়কে খুব কাছে থেকে ২২ বার প্রদক্ষিণ করবে যার মধ্যে শেষ পাঁচটি হবে গ্রহটির খুবই কাছাকাছি এবং গ্রহের পৃষ্ঠের ১৬০০ কিলোমিটারের মধ্যে এটি পৌঁছে যাবে। এই সময় এটি এমন কিছু তথ্য সংগ্রহ করে পৃথিবীতে প্রেরণ করবে যা এর আগে সম্ভব হয় নি। [iflscience.com অবলম্বনে]

-বিজ্ঞান পত্রিকা ডেস্ক

Share.

Comments are closed.