বিশ্বের প্রথম ‘বন শহর’ তৈরী হচ্ছে চীনে

1
90

পরিবেশ দূষণ রোধে চীনের গোয়াংজু প্রদেশের লিজোতে বিশ্বের প্রথম স্বীকৃত ‘বন শহর’ নির্মান শুরু হয়েছে। স্টিফেনো বোরি আর্কিটেট্টির নামের একটি দল এই সবুজ প্রকল্পটির নকশা করেছে যেখানে প্রায় ত্রিশ হাজার মানুষ বসবাস করতে পারবে।

শহরটি প্রায় ১০০ প্রজাতির দশ লক্ষ উদ্ভিদ এবং চল্লিশ হাজার গাছ দিয়ে আবৃত থাকবে যা একসঙ্গে প্রায় দশ হাজার টন কার্বন ডাইঅক্সাইড এবং ৫৭ টন দূষণ শোষণ করবে এবং বছরে আনুমানিক ৯০০ টন অক্সিজেন উৎপন্ন করবে।

 

ফলস্বরূপ, বন শহরটি বাতাসের গড় তাপমাত্রা হ্রাসে সাহায্য করবে, স্থানীয় বায়ুর গুণগত মান উন্নয়ন করবে, দূষণ তৈরীতে বাধা প্রদান করবে, প্রাকৃতিক বাসস্থান তৈরী করবে এবং আঞ্চলিক জীববৈচিত্র্য উন্নত করতে সাহায্য করবে।

লিজোর বন শহরটি হবে স্বয়ংসম্পূর্ণ যেখানে শক্তির প্রধান উৎস হবে নবায়নযোগ্য শক্তি যেমন, সৌর শক্তি এবং ভূ-তাপীয় শক্তি। সমগ্র শহরটি সামগ্রিকভাবে যুক্ত থাকবে বাণিজ্যিক অঞ্চল, আবাসিক এলাকা, বিনোদনমূলক স্থান, হাসপাতাল এবং দুটি বিদ্যালইয়ের সাথে। এছাড়াও শহরটি লিজোর সাথে সংযুক্ত রাখতে বৈদ্যুতিক গাড়ির জন্য দ্রুত গতির একটি রেল লাইন থাকবে।

লিজোর পৌরসাভা শহর পরিকল্পনা কমিশন ১৭৫ হেক্টর (৪৩২ একর) এলাকা জুড়ে বিস্তৃত লিজো বন শহরের নকশা করেছেন যা লিজোর লি জিয়াং নদীর উত্তর অংশ বরাবর অবস্থিত হবে।

যদি এটা সফল হয় তবে প্রকল্পটি চীনের জন্য অনেক সুনাম বয়ে আনবে এবং এটা দেশের অন্যান্য অংশের জন্যেও একটি উদাহরণ হয়ে উঠবে সেই সাথে সমগ্র বিশ্বের জন্যও। ২০২০ সালের মধ্যে প্রকল্পটি সম্পূর্ণ করার পরিকল্পনা রয়েছে।

[সায়েন্স এলার্ট- অবলম্বনে]

-শফিকুল ইসলাম

1 মন্তব্য

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.