টিউমারের রোগীকে টাইটানিয়ামের কাঁধ তৈরি করে দিয়ে বিকলাঙ্গতা এড়ানো হলো

0

দক্ষিণ চায়নার এক তরুনীকে সম্প্রতি অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ একটি সার্জারীর মাধ্যমে তাঁর স্ক্যাপুলা (কাঁধের হাড়) প্রতিস্পাপন করে দেওয়া হয়েছে টাইটেনিয়ামের কৃত্রিম স্ক্যাপুলার মাধ্যমে। ২৭ বছর বয়সী এই তরুনীর টিউমারের কারণে কাঁধের বিশাল অংশ ক্ষয় হয়ে যাওয়ায় সাম্প্রতিক উদ্ভাবিত এই প্রযুক্তি প্রয়োগ করা হলো।

patient-from-south-china-given-new-printed-titanium-shoulder-4

সম্প্রতি চিকিৎসাক্ষেত্রে থ্রিডি বা ত্রিমাত্রিক প্রযুক্তি বহুলভাবে ব্যবহৃত হচ্ছে। যদিও ইতিমধ্যে চিকিৎসায় প্রয়োজনে নানাবিধ প্রযুক্তি উদ্ভাবিত হয়েছে কিন্তু এগুলো প্রয়োগিক ক্ষেত্রে ব্যবহারের ক্ষেত্রে দীর্ঘ সময় লেগে যাবে। তবে এই ক্ষেত্রে থ্রিডি প্রিন্টিং ব্যাতিক্রম। সাম্প্রতিক প্রযুক্তি হলেও এই প্রযুক্তি ইতিমধ্যেই প্রায়োগিক ক্ষেত্রে জায়গা করে নিয়েছে। এই চীনা তরুনী মিস লী’র হাড় তৈরির জন্য ব্যবহৃত থ্রিডি প্রযুক্তি এমনই এক সফল দৃষ্টান্ত।

এই বিশেষ ক্ষেত্রটি ছিলো অত্যন্ত জটিল। লী’র পরিস্থিতি গতবছর ধরে খুব দ্রুতই অবনতির দিকে যাচ্ছিলো। প্রায় বছরখানেক আগে তিনি তাঁর বাম কাঁধে প্রথম ব্যাথা অনুভব করেন যা ত্রমশঃ অসহনীয় হয়ে ওঠে এবং তাঁর জীবনে নেতিবাচক প্রভাব ফেলে। অল্প সময়ের মধ্যে তিনি তাঁর হাত নাড়াতে সমস্যা অনুভব করতে শুরু করেন। পোশাক পরা কিংবা চুল আঁচড়ানোর মতো কাজগুলোও তাঁর জন্য দুরুহ হয়ে ওঠে।

মার্চের দিকে তিনি চিকিৎসকের স্মরণাপন্ন হন। তাঁর কাঁধের সিটি স্ক্যান এবং এমআরআই করে দেখা যায় স্ক্যাপুলায় টিউমার হয়েছে। এই মারাত্মক সমস্যা খুব ভয়াবহ হতে পারত, তাঁর হাত কাঁধ হতে কেটে বাদ দিতে হতে পারত যদি তিনি আর কিছুদিন বিলম্ব করে ডাক্তারের স্মরণাপন্ন হতেন।

patient-from-south-china-given-new-printed-titanium-shoulder-3

সার্জারীটি করার প্রক্রিয়াটিও ছিলো বেশ জটিল এবং এর সাথে বাড়তি ঝুঁকির সম্ভাবনাও ছিলো। সার্জারীর মধ্য দিয়ে যাওয়া রোগীগণ অনেক সময় নিজেদের যত্ন নিতে পারেন না এবং ফলে অক্ষম হয়ে পড়েন। ব্যপক আলাপ-আলোচনার পর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ অবশেষে তাঁর কাঁধের স্ক্যাপুলা এবং হিউমেরাসের অংশবিশেষ প্রতিস্থাপন করার সিদ্ধান্ত নেন। সর্বোচ্চ সফলতার সম্ভাবনা থাকায় টাইটানিয়ামের তৈরি থ্রিডি প্রিন্টিংএর হাড় দিয়ে প্রতিস্থাপিত করার সার্জারীর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন।

-বিজ্ঞান পত্রিকা ডেস্ক

 

Share.

মন্তব্য করুন