Top header

প্রথমবারের মতো ডাইনোসরের মস্তিষ্কের ফসিল খুঁজে পাওয়া গেল

0

ডাইনোসরের হাড়ই যে একমাত্র ফসিল বা জীবাষ্ম হিসেবে পাওয়া যায় তা কিন্তু নয়। গবেষকগণ ইতিপূর্বে ডাইনোসরের সাথে সম্পর্কযুক্ত ডিম, বিষ্ঠা, পালক, পদচিহ্ন ইতাদি ফসিল হিসেবে আবিষ্কার করেছিলেন। এছাড়াও কখনো কখনো ডায়নোসরের চামড়া, টিস্যু, রক্তনালিকা ইত্যাদিও আবিষ্কৃত হয়েছে। সম্প্রতি Geological Society of London এর একটি প্রকাশনায় ডায়নোসরের মস্তিষ্কের ফসিল খুঁজে পাওয়ার প্রতিবেদন প্রকাশ করেছেন গবেষকগণ।

বছর দশেকে আগে দক্ষিন-পূর্ব ইংল্যান্ডের সাসেক্সে একজন ফসিল শিকারী একটি ছোট বাদামী নুড়ি থেকে থমকে যান। একদল ফসিলবিদের গবেষনা থেকে উদ্ঘটিত হয় এটি আসলে ইগুয়ানডন নামক একপ্রকার তৃণভোজি ডায়নোসরের মস্তিষ্কের ফসিলে পরিণত হওয়া নরম টিস্যু। এরা ক্রেটাসিয়াস যুগের শুরুতে প্রায় ১৩.৩ কোটি বছর আগে বসবাস করত।

content-1477568499-animation-46এই আবিষ্কার খুবই তাৎপর্যপূর্ণ, কেননা এটিই অদ্যাবধিপ্রাপ্ত ডায়নোসরের মস্তিষ্কের টিস্যুর একমাত্র নমুনা। যদিও ডায়নোসরের মস্তিষ্কের প্রকৃত নরম টিস্যুটি এখন আর বিদ্যমান নেই, কিন্তু এই ফসিল থেকে এর মস্তিষ্কের জটিল খুঁটিনাটি সম্বন্ধে ধারনা পাওয়া যায়।

অনুপুঙ্গ সিটি স্ক্যানের মাধ্যমে এই টিস্যু হতে রক্তনালিকা, কোলাজেনের নেটওয়ার্ক, অনুনালিকা এবং এমনকি বহিঃস্থ স্নায়ু টিস্যুর স্তরও উদ্ঘটিত হয়েছে, যা ফসিলটিতে খুব চমৎকারভাবে সংরক্ষিত থেকেছে। গবেষকগণ বলেন, তাঁরা ফসিল থেকে যে ধরনের টিস্যু প্রাপ্তি আশা করেন এটি তার সম্পূর্ন বিপরীত এবং বিরল প্রকৃতির।

দুর্ভাগা ডায়নোসরটি তীব্র অম্লীয় এবং অক্সিজেনবিহীন একটি জলাভুমিতে ডুবে মারা যায়, এবং ব্যাক্টেরিয়াবিবর্জিত পরিবেশে এর মস্তিষ্কটি দীর্ঘদিন অপচনশীল থেকে ক্রমে ফসিলে পরিণত হয়।

-বিজ্ঞান পত্রিকা ডেস্ক

Share.

মন্তব্য করুন