Top header

ইউরোপের মহাকাশযান এক্সোমার্স মঙ্গলের মাটিতে অবতরণ করতে যাচ্ছে

1

সব পরিকল্পনা ঠিকঠাক কাজ করলে ইউরোপ হতে যাচ্ছে মঙ্গলে সফলভাবে পদার্পনকারী দ্বিতীয় দল। ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সির Schiaparelli অবতরণকারী তার প্রধান মহাকাশযান এক্সোমার্স অর্বিটার থেকে আলাদা করা হয়েছে এবং আজ এর অবতরণকারী যান লাল গ্রহটির পৃষ্ঠ স্পর্শ করবে।

মঙ্গল হচ্ছে অবতরণকারী যানমূহের কবরস্থান। আজ পর্যন্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র প্রথম কোন জাতি যারা মঙ্গলে কোন মহাকাশযান সফলভাবে অবতরন করিয়েছে এবং কয়েক মিনিট পর্যন্ত পরিচালনা করতে পেরেছে। যার শুরু হয়েছিলো ১৯৭৬ সালে ভাইকিং মিশনের মাধ্যমে। কিন্তু এরপর আমরা কয়েকটি অবতরণকারী যান ধ্বংস হতে দেখেছি। এদের মধ্যে সোভিয়েত ইউনিয়ন এবং যুক্তরাজ্য দেশের যানগুলো অন্যতম।  এখন ইউরোপ আরেকবার সৌরজগতের ৪র্থ গ্রহ হতে যাচ্ছে এই লাল গ্রহের ভূমি স্পর্শ করার পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।

পূর্বের সময় অনুযায়ী আজ সকাল ৬টায় মিশন কন্ট্রোল এই অবতরন সরাসরি সম্প্রচার করবে।  আশা করা হচ্ছে অবতরণকারী যানটি সকাল ১০টার দিকে ঘন্টায় ১৩ হাজার মাইল গতিবেগে মঙ্গলের আবহাওয়ায় প্রবেশ করবে এবং এর ৬ মিনিট পরে অবতরণ করবে। আপনি নিচের লিংকে অবতরণের সরাসরি সম্প্রচার উপভোগ করতে পারবেন।

http://www.esa.int/Our_Activities/Space_Science/ExoMars/Watch_ExoMars_arrival_and_landing

Schiaparelli অবতরণকারীযান থেকে সংকেত আসছে লক্ষ লক্ষ মাইল দূর থেকে, যা আসতে ১০ মিনিট সময় নেয়। তাই ১০.৫৮ মিনিটের আগে অবতরণ অবতরণ কখন করবে সেটা বলা কঠিন।

exomars-landing

যখন এক্সোমার্স  মঙ্গলের আবহাওয়ায় প্রবেশ করবে তখন সেখানে মিথেন অথবা জীবনের অন্যান্য সম্ভাবনার লক্ষণ খোঁজ করবে। Schiaparelli মঙ্গলের প্রচন্ড তাপ থেকে যানটিকে রক্ষা করার লক্ষ্যে নতুন একটি অবতরণ পদ্ধতি পরীক্ষা করবে, যেখানে একটি তাপীয় ঢাল ব্যহৃত হবে। তারপর অবরণের জন্য ইঞ্জিনে অগ্নিসংযোগ করা মাধ্যমে মৃদু ধাক্কার সৃষ্টির করা হবে।

-শফিকুল ইসলাম

Share.