বৃষ্টির ফোঁটার প্রকৃত আকৃতি

0
218
বৃষ্টির ফোঁটার আকৃতি অশ্রুর মতো নয়, বরং হ্যামবার্গারের বানের মতো কিংবা বরবটির বিচির মতো।

বৃষ্টির ফোঁটার আকৃতি চোখের অশ্রুর মতো , তাই না? ভুল। আমাদের সাহিত্য-সংস্কৃতিতে প্রায়ঃশই বৃষ্টির ফোঁটার আকার অশ্রুর মতো দেখানো হয়। কিন্তু এটা আসলে সত্য নয়। নাসার প্রকাশিত একটি ভিডিওতে বৃষ্টির ফোঁটার আকৃতি উদ্ঘাটন করা হয়েছে। তাতে এমনই মনে হয়।

বায়ুমন্ডলের অনেক উঁচুতে বৃষ্টির ফোঁটার আকৃতি গোলাকার থাকে পানির পৃষ্ঠটানের কারণে। পৃষ্ঠটানকে পানির ফোঁটার উপরে একটি চামড়ার মতো কল্পনা করা যায় যা পানির অণুগুলোকে ধরে রাখে। বৃষ্টির ফোঁটা পড়তে শুরু করলে অন্যান্য ফোঁটার সাথে সংঘর্ষে এদের গোলাকৃতি নষ্ট হয়ে যায়। তলদেশে চ্যাপ্টা এবং উপরে ডোম আকৃতি নিয়ে এগুলো তখন হ্যামবার্গারের বান কিংবা বরবটির বিচির মতো আকৃতি ধারণ করে।

বৃষ্টির ফোঁটার আকৃতি অশ্রুর মতো নয়, বরং হ্যামবার্গারের বানের মতো কিংবা বরবটির বিচির মতো।
বৃষ্টির ফোঁটার আকৃতি অশ্রুর মতো নয়, বরং হ্যামবার্গারের বানের মতো কিংবা বরবটির বিচির মতো।

বৃষ্টির ফোঁটার আকৃতি থেকে বিজ্ঞানীরা একটি এলাকার বৃষ্টিপাতের পরিমান নির্ধারণ করতে পারেন। উদাহরণস্বরূপ, অপেক্ষাকৃত ভারী, ও চ্যাপ্টা বৃষ্টির ফোঁটা ভারী বৃষ্টির নির্দেশক। নাসা ও JAXA এর নেতৃত্বাধীন গ্লোবাল প্রেসিপিটেশন মেজারমেন্ট মিশন বা বৈশ্বিক বৃষ্টিপাত পরিমান (GPM) মিশন বৃষ্টির ফোঁটার আকার-আকৃতি গবেষণা করে বৃষ্টিপাতের ধরন নির্ধারণ করছে। এই কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে জাপানে অবস্থিত GPM এর মূল পর্যবেক্ষণাগার যা ২০১৪ সাল থেকে কার্যকর রয়েছে।

-বিজ্ঞান পত্রিকা ডেস্ক

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.