Top header

গবেষনায় প্রমাণীত শরীরচর্চার মাধ্যমে সত্যিই স্মরণশক্তির উন্নতি ঘটে

0

যদি আপনি নতুন কিছু শিখতে চান তাহলে অধ্যয়নের কয়েকঘন্টা পর ব্যায়ামাগার ঘুরে আসতে পারেন। কেননা, নতুন গবেষণায় দেখা গেছে কোন কাজ শেখার ঘন্টাচারেক পর শরীরচর্চা করলে তা স্মরণশক্তির উন্নতি ঘটায়।

Journal of Current Biology তে প্রকাশিত একটি সাম্প্রতিক গবেষণায় গবেষকগণ আবিষ্কার করেছেন যে মাথা খাটানোর কোনো কাজের চার ঘন্টা পর শরীরচর্চা করলে তা মস্তিষ্কে অপেক্ষাকৃত ভালোভাবে আবদ্ধ হয় এবং মস্তিষ্কের স্মৃতির সাথে জড়িত অংশের প্যাটার্নে উন্নতি ঘটে।

এই গবেষণায় একটি ছবি সনাক্তকরণের কাজ ব্যবহার করা হয়েছে যাতে ৭২ জন মানুষ ৪০ মিনিট অংশ নেন। পরে বিক্ষিপ্তভাবে অংশগ্রহণকারীদের একাংশকে তাৎক্ষণিকভাবে শরীরচর্চা করতে পাঠানো হয়, একাংশকে চারঘন্টা পর পাঠানো হয় এবং বাকী অংশকে আদৌ শরীরচর্চা করতে দেওয়া হয় নি।

দুই দিন পর অংশগ্রহণকারীদের মস্তিষ্ক স্ক্যান করা হয় এবং পরীক্ষা করে দেখা হয় কতোটা ভালো ভাবে তাঁরা তাঁদের কাজটি শিখতে পেরেছেন। যেসব মানুষ প্রশিক্ষণের কয়েকঘন্টা পর শরীরচর্চা করেছেন তাঁরা অপেক্ষাকৃত বেশী তথ্য মনে রাখতে পেরেছেন। তাদের মস্তিষ্কের স্মৃতি সংরক্ষনের সাথে যুক্ত এলাকাও অধিকতর সক্রিয় হতে দেখা গেছে।

বিভিন্ন প্রাণীর উপর গবেষনায় দেখা গেছে শরীরচর্চার মাধ্যমে যে নিউরোট্রান্সমিটার নিঃসৃত হয় তার মাধ্যমে একধরনের প্রোটিন তৈরি হয় যা নতুন স্মৃতিগুলোকে স্থিতিশীল করতে সাহায্য করে। প্রচুর গবেষণাপত্রে দাবী করা হয়েছে দৈনন্দিন ব্যায়ামের ফলে মস্তিষ্কের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটে কিন্তু নতুন গবেষনায় দাবী করা হয়েছে বিশেষ এক সেশনের ব্যয়াম স্মৃতির স্থায়িত্বে ভুমিকা রাখতে পারে।

তবে এই গবেষণাটি করা হয়েছে কেবল সামান্য কিছু পরিমান মানুষের উপর। তাই সত্যিই আমাদের শরীরচর্চার যথাযথ সময় নির্ধারন করব কিনা তার জন্য আরো গবেষণা প্রয়োজন।

Share.

মন্তব্য করুন